মানচুকাব্য
   
 
  জীবাণু

              

        জীবাণু 

তোর বিন্দু বিন্দু প্রশ্রয়ে আমি তোর ভেতরে বেড়ে উঠি

তোর ভেতরে আমার শাখা-প্রশাখা গজিয়ে ওঠে

আমি তোর থোক থোক ভালোবাসা খাদ্য হিসাবে গ্রহন করি।।

আমি চুপি-চুপি তোকে ছুঁই,তোর স্পর্শ নিই।।

 

আমি হিংস্র বাঘের মতো তোর ভেতরের কোষগুলো খাবলে খাবলে খাই।

প্রতি নিয়ত শকুনের উল্লাসে মেতে উঠি।।

আমি আমার আলোর তোর ভেতরে আলোকিত করি

তোর বোধকে আরো উন্নত করি।

তোর বিন্দু বিন্দু প্রশ্রয়ে আমি তোর ভেতরে বাসা বাঁধি

আমি তোর দুঃখে কাঁদি,তোর সুখে ভেসে যাই

আমি তোর ভেতরে অসংখ্য আমি জন্ম দিই।।

আমি তোর ভেতরে এনে দিই নীল সমুদ্র

প্রতিদিন নৌকা ভাসায় সেই সমুদ্রে...।।

তোর ভেতরে আমি শিশু হই,মেতে উঠি এলেবেলে খেলায়।

তোর ভেতরে আমি বাবা হই,আবার তোকে জন্ম দিই।

প্রগাঢ় মমতায় তোকে বেঁধে রাখি জীবাণুর মতো।

তোর ভেতরে আমিগাছ বেড়ে ওঠে নিঃশব্দে

তোর ভেতরে মানচুমাহারার আকন্ঠ বসবাস-সহবাস।।






Add comment to this page:
Your Name:
Your Email address:
Your website URL:
Your Message:

Advertisement
 
 

=> Do you also want a homepage for free? Then click here! <=